গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী আশু মিয়া কে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় ইউনিয়নবাসী

 প্রকাশ: ১৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩২ অপরাহ্ন   |   মুকসুদপুর


নিজস্ব প্রতিনিধি, 

ইউনিয়নবাসী জানায়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী একজন আশু মিয়া, স্বৈরাচার এরশাদের আমলে বাড়ি গাড়ি টাকা র লোভ ও অস্ত্রর  ভয় দেখিয়ে যে নেতার সঙ্গে আপোস করতে পারেনি সেই- মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী আশু মিয়া ২০১৬ সালে নৌকা প্রতিক নিয়ে মহারাজপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েছে।


একজন চেয়ারম্যান আমরা পেয়েছি, মার্জিত, ভদ্র স্বভাবী, সৎ মানুষ, সাধারন মানুষের পাশে সুখে-দুখে সে সবসময় থাকে। (সাবেক) দীর্ঘ ২৭ বছরের সফল সাধারণ সম্পাদক মুকসুদপুর উপজেলা শাখা।


সে বর্তমানে সুনামের সাথে ইউপি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি গরীবদের বিভিন্ন ভাতাসহ সরকারের সকল ধরণের সাহায্য সঠিকভাবে বন্টন করেছেন।


ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে এবং সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী আশু মিয়া কে পুনরায় আওয়ামী লীগের মনোয়ন পেতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মুহাম্মদ ফারুক খান এমপির সুদৃষ্টি কামনা করেন ইউনিয়নবাসী।


পুনরায় সে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে আমাদের ইউনিয়নে এর চেয়ে বেশি উন্নয়ন হবে।


মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী আশু মিয়া বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সারাদিয়ে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলন। আজও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে বেঁচে আছি এবং যেতোদিন বেঁচে থাকবো তার আদর্শ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাবো।


আমাদের মাটিও মানুষের নেতা বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য, গোপালগঞ্জ-১ আসনের এমপি মুহাম্মাদ ফারুক খানের নির্দেশে ইউনিয়নে কাজ করে যাচ্ছি। তার নির্দেশে প্রতিটি কাচা রাস্তা পাকা করা হয়েছে।


স্কুল, মাদ্রসা, মন্দির, ব্রীজ, কালভার্টসহ ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। আমাদের প্রিয় নেতা গোপালগঞ্জ-১ আসনের এমপি মুহাম্মাদ ফারুক খানের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে যদি পুনরায় নৌকা প্রতিক দেয় তাহলে মহারাজপুর ইউনিয়নে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে এবং মহারাজপুর ইউনিয়ন হবে একটি ডিজিটাল ইউনিয়ন।

মুকসুদপুর এর আরও খবর: